শনিবার, ১১ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
৮ই সফর, ১৪৪২ হিজরি
ads

হুমায়ুন ফরীদির জন্মদিন আজ

বহুমাত্রিক অভিনেতা হুমায়ুন ফরীদির জন্মদিন শুক্রবার। বেঁচে থাকলে তিনি আজ ৬৮ বছর ছুঁতেন। বিশেষ এই দিনের প্রথম প্রহর থেকে ভক্তরা স্মরণ করছেন তাকে। সোশ্যাল মিডিয়ায় শ্রদ্ধা-ভালোবাসার ডালি সাজিয়েছেন তারা।

ঢাকার নারিন্দায় ১৯৫২ সালের ২৯ মে জন্ম ফরীদির। ১৯৭০ সালে স্নাতক শ্রেণিতে ভর্তি হয়েছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে জৈব রসায়ন বিভাগে। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ শুরু হলে স্থগিত হয়ে যায় পড়াশোনা। স্বাধীনতার পর অর্থনীতি বিষয়ে ভর্তি হন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে। প্রথম শ্রেণিতে প্রথম স্থান অধিকার করে স্নাতক পাস করেন।

হুমায়ুন ফরীদির অভিনয়জীবনের শুরু ছাত্রজীবনে মঞ্চ নাটকের মধ্য দিয়ে। প্রথম মঞ্চনাটক কিশোরগঞ্জে মহল্লার নাটকে ১৯৬৪ সালে। মঞ্চে প্রথম নির্দেশনা দেন স্কুল জীবনে, নাম ‘ভূত’। তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য মঞ্চনাটক মুনতাসীর ফ্যান্টাসি, ফণীমনসা, শকুন্তলা, কীত্তনখোলা, কেরামত মঙ্গল প্রভৃতি।

টিভি নাটকে প্রথম অভিনয় করেন আতিকুল হক চৌধুরীর প্রযোজনায় ‘নিখোঁজ সংবাদ’-এ। তার অভিনীত অন্যান্য উল্লেখযোগ্য টিভি নাটকের মধ্যে রয়েছে সাত আসমানের সিঁড়ি, একদিন হঠাৎ, চাঁনমিয়ার নেগেটিভ পজেটিভ, অযাত্রা, পাথর সময়, দুই ভাই, শীতের পাখি, সংশপ্তক, কোথাও কেউ নেই, নীল আকাশের সন্ধানে, দূরবীন দিয়ে দেখুন, ভাঙনের শব্দ শুনি, বকুলপুর কতদূর, মহুয়ার মন, সমুদ্রে গাঙচিল,‌ তিনি একজন, চন্দ্রগ্রস্ত, কাছের মানুষ, মোহনা, বিষকাঁটা, শৃঙ্খল, ভবের হাট প্রভৃতি।

হুমায়ুন ফরীদির প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ১৯৮৫ সালে মুক্তি পাওয়া শেখ নিয়ামত আলীর ‘দহন’। প্রথম বাণিজ্যিক চলচ্চিত্র শহীদুল ইসলাম খোকন পরিচালিত ‘সন্ত্রাস’। ভণ্ড, ব্যাচেলর, জয়যাত্রা, অপহরণ, শ্যামলছায়া, রাক্ষস, একাত্তরের যীশু, মায়ের অধিকার, বিশ্বপ্রেমিক ও পালাবি কোথায়সহ অসংখ্য ছবিতে অভিনয় করেন তিনি।  তিনি ‘মাতৃত্ব’ ছবির জন্য সেরা অভিনেতা শাখায় জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন ২০০৪ সালে।

অভিনয়ের পাশাপাশি কিছু টেলিফিল্ম, ধারাবাহিক ও এক ঘণ্টার নাটক নির্মাণ করেছেন তিনি।

হুমায়ূন ফরীদি দুবার বিয়ে করেন। ফরিদপুরের মেয়ে মিনুকে বিয়ে করেন প্রথমে। সেই ঘরে রয়েছে তার একমাত্র সন্তান দেবযানি। পরে তিনি ঘর বাঁধেন প্রখ্যাত অভিনেত্রী সুবর্ণা মুস্তাফার সঙ্গে। কিন্তু ২০০৮ সালে তাদের বিচ্ছেদ হয়ে যায়।

২০১২ সালে ১৩ ফেব্রুয়ারি ষাট বছর বয়সে মারা যান হুমায়ূন ফরীদি।

Share with Others

শেয়ার করুন:

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on pinterest
Share on whatsapp
Share on email
Share on print

আরও পড়ুন:

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
১৭৮,৪৪৩
সুস্থ
৮৬,৪০৬
মৃত্যু
২,২৭৫

বিশ্বে

আক্রান্ত
৩২,৮০৩,৪৮২
সুস্থ
২৪,১৯৯,৬৭০
মৃত্যু
৯৯৪,৩১২

আর্কাইভ