শুক্রবার, ৩রা আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং
২৯শে মুহাররম, ১৪৪২ হিজরী
ads

কাল থেকে শর্তসাপেক্ষে খুলে দেয়া হচ্ছে দেশের সব মসজিদ

দেশটুডে২৪ ডেস্ক: আগামীকাল বৃহস্পতিবার (৭ মে) শর্তসাপেক্ষে দেশের সব মসজিদ খুলে দেয়া হচ্ছে। আজকের মধ্যেই প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে বলে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র সময় সংবাদকে জানিয়েছে।
 সূত্রটি জানায়, বৃহস্পতিবার জোহর থেকে দেশের মসজিদগুলো খুলে দেয়া হচ্ছে। তবে মসজিদে জামায়াতের ক্ষেত্রে শর্ত দুইজন মুসল্লির মধ্যে যথেষ্ট পরিমাণ দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। এছাড়া দুই কাতার পর এক কাতারের জায়গা ফাঁকা রাখতে হবে। এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপনটি প্রস্তুত করা হচ্ছে। আজকের মধ্যে জারি করা হবে।শর্তগুলোর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে-*প্রতি ওয়াক্ত নামাজের পর পুরো মসজিদ জীবানুনাশক দ্বারা পরিস্কার করতে হবে

*মসজিদে প্রবেশের পূর্বে স্যানিটাইজার বা হাত ধোঁয়ার সাবান রাখতে হবে

*অযু বাসা থেকে করে আসতে হবে

*সুন্নত নামাজ বাসায় আদায় করতে হবে

*নামাজের কাতারে দাঁড়ানোর সময় তিন দূরত্ব দাঁড়াতে হবে

*নামাজের কাতারে দাঁড়ানোর সময় তিন দূরত্ব দাঁড়াতে হবে

*মসজিদে সংরক্ষিত জায়নামাজ ও টুপি ব্যবহার করা যাবে না

*মসজিদে ইফতার ও সেহরির আয়োজন করা যাবে না

*মসজিদে কার্পেট বিছানো যাবে না

*শিশু, বয়োবৃদ্ধ ও অসুস্থ ব্যক্তি জামায়াতে নামাজ আদায় করতে পারবে না

এর আগে গত ২৩ এপ্রিল ইসলামিক ফাউন্ডেশন থেকে জানানো হয়, স্টাফ ছাড়া অর্থাৎ খতিব, ইমাম, মোয়াজ্জিন, খাদেমরা ছাড়া কেউ মসজিদে তারাবি নামাজ আদায় করতে পারবেন না। ঘরেই নামাজ আদায় করতে হবে

তার আগে ৬ এপ্রিল করোনায় সংক্রমিত হওয়ার হাত থেকে রক্ষা পেতে ঘরেই সব নামাজ আদায় করার নির্দেশনা দেয় ধর্ম মন্ত্রণালয়। এতে পাঁচটি দফা দেওয়া হয়। এগুলো হলো- করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধকল্পে মসজিদের ক্ষেত্রে খতিব, ইমাম, মোয়াজ্জিন, খাদেম ব্যতীত অন্য সব মুসল্লিকে সরকারের পক্ষ থেকে নিজ নিজ বাসস্থানে নামাজ আদায় এবং জুমার জামাতে অংশগ্রহণের পরিবর্তে ঘরে জোহরের নামাজ আদায়ের নির্দেশ দেওয়া যাচ্ছে। মসজিদে জামাত চালু রাখার প্রয়োজনে সম্মানিত খতিব, ইমাম, মোয়াজ্জিন, খাদেম মিলে পাঁচ ওয়াক্তের নামাজে অনধিক পাঁচজন ও জুমার নামাজে অনধিক ১০ জন শরিক হতে পারবেন। জনস্বার্থে বাইরের মুসল্লি মসজিদের ভেতরে  জামাতে অংশগ্রহণ করতে পারবেন না। অন্য ধর্মাবলম্বীদেরও ধর্মীয় উপাসনালয়ের পরিবর্তে নিজ নিজ বাসস্থানে উপাসনা করতে হবে। এতদিন ওই নির্দেশনাটিই বলবত ছিল। তারাবির জন্যও একই নির্দেশনা মানা হচ্ছিল।

তবে এবার মসজিদ উন্মুক্ত করে দেয়া হচ্ছে মুসল্লিদের জন্য। যদিও জামায়াতে মুসল্লিদের মাঝে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে এবং কাতারের দুই কাতারের মাঝে এক কাতারের জায়গা ফাঁকা রাখতে হবে।

শেয়ার করুন:

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on pinterest
Share on whatsapp
Share on email
Share on print

আরও পড়ুন:

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
১৭৮,৪৪৩
সুস্থ
৮৬,৪০৬
মৃত্যু
২,২৭৫

বিশ্বে

আক্রান্ত
৩০,৩৮০,০৩৪
সুস্থ
২২,০৬২,৯১৫
মৃত্যু
৯৫১,১৫০

আর্কাইভ