বৃহস্পতিবার, ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
১লা অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
১৩ই সফর, ১৪৪২ হিজরি
ads

বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপ : বিপদের শঙ্কায় ঘূর্ণিঝড় ‘আমফান’

দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর ও এর সংলগ্ন দক্ষিণ আন্দামান সাগর এলাকায় অবস্থানরত সুস্পষ্ট লঘুচাপটি ঘনীভূত হয়ে আজ শুক্রবার দুপুরের পর দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর ও এর সংলগ্ন আন্দামান সাগর এলাকায় নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে।
এটি আরও শক্তি সঞ্চয় করছে। এরফলে ধাপে ধাপে আরও ঘনীভূত হতে পারে। এটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নেয়ারও আশঙ্কা রয়েছে। সম্ভাব্য এই ঘূর্ণিঝড়ের নাম দেয়া হয়েছে ‘আমফান’। এটি থাইল্যান্ডের দেয়া প্যানেল কমিটির অভিন্ন পরিচিতি নাম।
করোনা-ভাইরাসের বৈশ্বিক মহামারী দুর্যোগকালের মধ্যেই আরেক বিপদের আশঙ্কা নিয়ে আসছে সম্ভাব্য নিম্নচাপ থেকে ঘূর্ণিঝড়-জলোচ্ছ্বাস। সাইক্লোনের আলামত দেখা দিলেই উপকূল, চর ও দ্বীপাঞ্চলবাসীর বুক কাঁপে।
সর্বশেষ ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ দশ নম্বর মহাবিপদ সঙ্কেত নিয়ে ভারত হয়ে বাংলাদেশের দক্ষিণ উপকূলে আঘাত হানে গতবছর ২০১৯ সালের ৯ নভেম্বর। চলতি মে মাসে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপ থেকে একটি ঘূর্ণিঝড়ের আশঙ্কার কথা আবহাওয়া বিশেষজ্ঞ কমিটির দেয়া দীর্ঘমেয়াদি পূর্বাভাসে বলা হয়।
নিম্নচাপের প্রভাবে সমুদ্র উত্তাল হয়ে উঠেছে। দেশের সমুদ্র বন্দরগুলোতে এক নম্বর সতর্ক সঙ্কেত দেখাতে বলা হয়েছে। নিম্নচাপটির সর্বশেষ অবস্থান ছিল ১০.৫ ডিগ্রি উত্তর অক্ষাংশ এবং ৮৮.৫ ডিগ্রি পূর্ব দ্রাঘিমাংশে।

আবহাওয়ার বিশেষ বুলেটিনে আবহাওয়াবিদ ড. মুহাম্মদ আবুল কালাম মল্লিক জানান, নিম্নচাপটি আজ দুপুর ১২ টায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ১৩৫০ কিলোমিটার দক্ষিণ, দক্ষিণ-পশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ১২৭৫ কি.মি. দক্ষিণ, দক্ষিণ-পশ্চিমে, মংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ১৩৩৫ কি.মি. দক্ষিণে এবং পায়রা সমুদ্র বন্দর থেকে ১২৯০ কি.মি. দক্ষিণে অবস্খান করছিল।
নিম্নচাপটি আরও ঘনীভূত হয়ে উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হতে পারে। নিম্নচাপ কেন্দ্রের ৪৪
কিলোমিটওে মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘন্টায় ৪০ কি.মি., যা দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ৫০কি.মি. পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে।

নিম্চাপ কেন্দ্রের কাছাকাছি সাগর উত্তাল রয়েছে। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে এক নম্বর দূরবর্তী সতর্ক সঙ্কেত সঙ্কেত দেখাতে বলা হয়েছে।
এদিকে নিম্নচাপের প্রভাবে উপকূলীয় এলাকায় ভ্যাপসা গরম পড়ছে। দেশের অনেক জায়গায় তাপদাহ বইছে। কোথাও কোথাও তাপমাত্রা কিছুটা সহনীয় মাত্রায় নেমেছে। বিক্ষিপ্ত বৃষ্টিপাত হচ্ছে বিভিন্ন স্থানে। সকাল ৬টা পর্যন্ত সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত হয় ঈশ্বরদীতে ৯৮ মিলিমিটার। আগামী ৭২ ঘণ্টায় দেশের আবহাওয়ায় পরির্তনের সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানায় আবহাওয়া বিভাগ।

Share with Others

শেয়ার করুন:

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on pinterest
Share on whatsapp
Share on email
Share on print

আরও পড়ুন:

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
১৭৮,৪৪৩
সুস্থ
৮৬,৪০৬
মৃত্যু
২,২৭৫

বিশ্বে

আক্রান্ত
৩৪,৩৫০,১৮৬
সুস্থ
২৫,৫৪৫,১১৫
মৃত্যু
১,০২১,৩৯৭

আর্কাইভ