শুক্রবার, ২৬শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
১০ই জুলাই, ২০২০ ইং
১৭ই জিলক্বদ, ১৪৪১ হিজরী
ads

করোনা রোধে জীবন বাজি রেখে ছুটে চলছেন সাংবাদিক মাহাবুব আলম বাবু

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ মুন্সীগঞ্জে করোনা যুদ্ধে ছুটে চলা এক বীর সাংবাদিক মাহাবুব আলম বাবু। যিনি বৈষিক মহামারী করোনা ভাইরাস প্রার্দূভাব এড়াতে বিভিন্ন পদক্ষেপ হাতে নিয়েছেন। মুন্সীগঞ্জের সিনিয়ার এই সাংবাদিকের নানা মুখি উদ্যোগে জনসাধারনের মাঝে স্থানীয় সাংবাদিকদের কর্মকান্ড নিয়ে ইতিবাচক মনভাব তৈরি হয়েছে।

কি করেন নি তিন ! বৈষিক মহামারী করোনা ভাইরাসের সংক্রামক রোধে স্কুল কলেজ বন্ধের দিন ১৮ মার্চ থেকে মানব সেবায় বিভিন্ন কার্যক্রম নিয়ে প্রস্তুতি শুরু করেন তিনি। যা ২৬ মার্চ থেকে প্রকাশ পায় শুরু হয় তার খাদ্য উপহার ও জীবানুনাশক স্পে অভিযান যা আজ ২৭ এপ্রিল পর্যন্ত অব্যাহত রেখেছেন তিনি। যার মধ্যে কর্মহীন দরিদ্র ও মধ্যবিত্ত পরিবারে বাড়ী বাড়ী পৌছে দিচ্ছেন খাদ্য উপহার। পাশাপাশি জীবন বাজি রেখে শহর থেকে গ্রাম বা পাড়া মহল্লার আনাচে কানাচে করে যাচ্ছেন জীবানুনাশ স্পে। এতে করে সাধারণ মানুষের ভাইরাস সংক্রমন রোধে ব্যাপক ভুমিকা পালন করছে। তার এমন উদ্যোগে সাধারণ মানুষের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ উদ্ধিপনা লক্ষ করা গেছে।
কোথাও সশরীরে চালিয়ে যাচ্ছেন জীবানুনাশক স্প্রে কার্যক্রম, আবার কখনো বিভিন্ন পাড়ামহল্লার যুবকদের অনুপ্রেরনা দিচ্ছেন এবং তাদের হাতে তুলে দিচ্ছেন জীবানুনাশকসহ স্পে মেশিন।
‘পরিবারের পাশে থাকি’ এ স্লোগান বুকে ধারন করে
তিনি ইতোমধ্যে নির্দিষ্ট পরিবারের কাছে উপহারের খাদ্যসামগ্রী পোছে দেয়ার প্রথম ও দ্বিতীয় ধাপে কার্যক্রম ভালো ভাবেই শেষ করেছেন । এখন চলছে তৃতীয় ধাপের প্রস্তুতি।

শুধু কর্মহীন দরিদ্র বা মধ্যবিত্তই নয় পাশাপাশি অব্যাহত রেখেছেন ভাসমান ও ছিন্নমূলদের মাঝে সরাসরি খাদ্যসামগ্রী বিতরণ। তার এমন উদ্যোগে যেসব এলাকা বা পাড়া মহল্লা উপক্রিত হয়েছে তার মধ্যে নয়াগাও,গজারিয়াকান্দি,গুহেরকান্দি,মুন্সীরহাট, পঞ্চসারসহ, মুন্সীগঞ্জ পৌরএলাকার, সদর হাসপাতাল,মুন্সীগঞ্জ সদর থানা, মাতৃস্বাস্থ্য কেন্দ্র, পুলিশ সার্কেল অফিস, মালপাড়া, জগধাত্রীপাড়া, গোয়ালপাড়া, বাগমামুদালীপাড়া বটতাল, খালইস্ট, ইসলামপুর, শ্রীপল্লি, ইদ্রাকপুর, মানিকপুর, জমিদারপাড়া, সদররোড়, জুবলিরোড, কলেজপাড়া,সুপারমার্কেট, হাসপাতাল রোড, থানারপুল মোড়, হাটলক্ষীগঞ্জ, থানাকাউন্সিল, কোর্টগাও,কাচারী, বাজার এলাকসহ বিভিন্ন পাড়া মহল্লার ডাস্টবিন, মসজিদ, মন্দির, প্রেসক্লাব, ঔষধের দোকানসহ বাসাবাড়িতে প্রায় ২শ বারের অধিক জীবানুনাশক স্প্রে কার্যক্রম চালিয়েছেন তিনি।

তার এমন উদ্যোগের বিষয় যানতে চাইলে মাহাবুব আলম বাবু বলেন, মুক্তিযুদ্ধ করতে পারিনি, করোনা সংক্রমণ রোধ আমার কাছে নতুন এক মুক্তিযুদ্ধ। করোনার বিরুদ্ধে এই যুদ্ধে আমি মারা গেলে আমার পরিবারের সকলেই বিশেষ করে আমার মেয়েরা যেন গর্ববোধ করে। এছাড়া আমার বাসার সবাই আমার আব্বা-আম্মা, ভাইবোন, বন্ধুবান্ধব থেকে শুরু করে সহকর্মি সাংবাদিক, শিক্ষক, ডাক্তার, আইনজীবী, বাবসায়ী, ইমাম,গৃহিণী, প্রবাসীসহ সাধারণ মানুষের আংশগ্রহণ ও ভালবাসায়, আমি সিক্ত হচ্ছি।

সম্মিলিত অংশগ্রহণের মাধ্যমে জীবানুনাশকসহ ২শ ৫০ স্প্রেকর্ক ও খাদ্য সামগ্রী নিয়ে এ সময়ে প্রায় সাড়ে ছয়শো পরিবারের কাছে যেতে পেরেছি। ৩১ দিন ধরে চলমান কার্যক্রমের ফলে ‘পরিবারের পাশে সময় দিতে পারছিনা ফলে কিছুতেই ঘরবন্দী হতে পারছিনা। নিজের কষ্ট হলেও মানুষ যাতে ভালো থাকে সেই চেষ্টা করে যাচ্ছি। আমি মনে করে প্রতিটা মানুষ আমার পরিবারে সদস্য । তাই বর্তমানে নতুন আইডিয়ার আলোকে “পরিবারের পাশে থাকি”এর কার্যক্রম শুরু করেছি যা সংকটকালিন পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে বলেও যানান তিনি।

শেয়ার করুন:

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on pinterest
Share on whatsapp
Share on email
Share on print

আরও পড়ুন:

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
১৭৫,৪৯৪
সুস্থ
৮০,৮৩৮
মৃত্যু
২,২৩৮

বিশ্বে

আক্রান্ত
১২,৩১৬,১২৬
সুস্থ
৭,১৬১,৯৮৫
মৃত্যু
৫৫৪,৯৮৭

আর্কাইভ