সোমবার, ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
১০ই সফর, ১৪৪২ হিজরি
ads

২৬ বছর ধরে রোজা রেখে ‘বাবরি মসজিদ’ ভাঙার প্রতিবাদ করে আসছেন কোলকাতার হিন্দু ধর্মাবলম্বী সঞ্জয় মিত্র

আসিফ সোহানঃ কলকাতার বাসিন্দা, ৭১ বছর বয়সী এক হিন্দু গত ২৬ বছর ধরে রমজানের সময়ে রোজা রেখে চলেছেন। অযোধ্যায় বাবরি মসজিদ ধ্বংসের বিরুদ্ধে এটা তাঁর ব্যক্তিগত প্রতিবাদ আর সংখ্যাগরিষ্ঠ ধর্মের মানুষ হিসাবে লজ্জাপ্রকাশ।
অথচ এমন এক পরিবারের সন্তান সঞ্জয় মিত্র, যাঁদের বাড়িতে ১২৫ বছর ধরে দূর্গাপুজো হয়ে আসছে।
রমজানের এক বিকেলে মগরিবের নমাজ শুরু হওয়ার একটু আগেই বাড়ী থেকে জিনস্ আর খদ্দরের ফতুয়া গায়ে সেই বাড়ী থেকে বেরিয়েছিলাম মি. মিত্রর সঙ্গে।

কলকাতার মুসলমান প্রধান এলাকা রাজাবাজারের ঠিক যেখানে হিন্দু পাড়া শেষ হয়ে শুরু হয়েছে মুসলমান মহল্লা সেখানেই একটা মাঝারি মাপের খাবার দোকানে ঢুকতেই সবার সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় হল।
কোনো দেশে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা বা সহিংসতা হলে সেটি যে সেই দেশের সংখ্যালঘুদের চেয়ে সংখ্যাগুরু সম্প্রদায়ের জন্য বড় লজ্জার বিষয়, এই সত্যটি দেশবাসীকে জানান দিলেন সঞ্জয় মিত্র নামের একজন মহান ভারতীয় নাগরিক।
১৯৯২ সালের ৬ ডিসেম্বর উগ্রপন্থী হিন্দুদের হাতে অযোধ্যায় বাবরি মসজিদ ধ্বংস হওয়ার প্রতিবাদে সঞ্জয় মিত্র ২৬ বছর ধরে রোজা রেখে চলেছেন। বাবরি মসজিদ ভাঙার সঙ্গে ব্যক্তি সঞ্জয় মিত্রের কোনো সম্পর্ক নেই।

সে সময়ে ভারতের অনেক স্থানে দাঙ্গা-হাঙ্গামা হলেও সঞ্জয় মিত্র যে শহরের বাসিন্দা, সেই কলকাতা তথা পশ্চিমবঙ্গে কোনো অঘটন ঘটেনি। তার পরও সংখ্যাগরিষ্ঠ হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষ হিসেবে তিনি মনে করেন, এই ঘটনার প্রতিবাদ হওয়া উচিত। কীভাবে প্রতিবাদ হবে? একসময় সঞ্জয় মিত্র বামপন্থী রাজনীতি করতেন। তখন প্রতিবেশী মুসলিম পাড়ায় গিয়ে সদলবলে তাদের পাহারা দিতেন, যাতে দুর্বৃত্তরা কোনো ক্ষতি করতে না পারে। বর্তমানে তিনি রাজনীতি থেকে দূরে।

তাই ব্যক্তিগতভাবে ব্যতিক্রমী এক প্রতিবাদের ভাষা বেছে নিলেন রমজান মাসের ৩০ দিন রোজা রেখে। প্রতিবেশী মুসলমানদের সঙ্গে সময় মিলিয়ে তিনিও রোজা রাখেন, তাঁদের সঙ্গে ইফতার করেন। তাঁর মতে, এটি হলো প্রতিবেশী মুসলমানদের প্রতি সহমর্মিতা জানানোর পাশাপাশি নিজ সম্প্রদায়ের পাপমোচনের উপায়। বিজেপি সরকারের দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় এসে সেই বাবরি মসজিদের স্থলে রাম মন্দীর নির্মাণের সুপ্রিম কোর্টের রায়, এবং মোদি অমিত শাহ্দের নাগরিক পন্জী বাস্তবায়নের চেষ্টার মধ্যেও রোজা রেখে তিনি তাঁর সম্প্রদায়ের মানুষকে সংযমী হতে বলেন, হিংসা ও বিদ্বেষ থেকে দূরে থাকার শিক্ষা দেন।

সঞ্জয় মিত্র অসাম্প্রদায়িক স্বাধীন বাংলাদেশের পক্ষ থেকে এই প্রতিবাদের জন্য আপনাকে অভিনন্দন।
অন্য সম্প্রদায়ের মানুষের প্রতি আপনার এই সহমর্মিতা অনন্য উদাহরণ হয়ে থাকবে।

Share with Others

শেয়ার করুন:

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on pinterest
Share on whatsapp
Share on email
Share on print

আরও পড়ুন:

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
১৭৮,৪৪৩
সুস্থ
৮৬,৪০৬
মৃত্যু
২,২৭৫

বিশ্বে

আক্রান্ত
৩৩,৩০৩,২০৯
সুস্থ
২৪,৬৩৪,০৬১
মৃত্যু
১,০০২,৩৮৩

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১