বুধবার, ২১শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
৫ই আগস্ট, ২০২০ ইং
১৪ই জিলহজ্জ, ১৪৪১ হিজরী
ads

মালদ্বীপের বিপক্ষে বড় জয় বাংলাদেশের

দেশটুডে২৪ নিউজ: মালদ্বীপের বিপক্ষে প্রত্যাশিত ঝড় উঠেনি সৌম্য সরকার, নাঈম শেখ, নাজমুল হোসেনের ব্যাটে। সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় স্কোরবোর্ড অবশ্য হয়েছে সমৃদ্ধ। তানভীর ইসলামের দারুণ বোলিংয়ে এরপর অসহায় আত্মসমর্পণ করেছে মালদ্বীপ। একাই ৫ উইকেট নিয়ে বাংলাদেশকে বড় জয় এনে দিয়েছেন এই বাঁহাতি স্পিনার।

এসএ গেমসে বুধবার নিজেদের প্রথম ম্যাচে মালদ্বীপকে ১০৯ রানে হারিয়েছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ দল। ১৭৫ রানের লক্ষ্য তাড়ায় নেমে মালদ্বীপ গুটিয়ে যায় মাত্র ৬৫ রানে। বোলিংয়ে বাঁহাতি স্পিনার তানভীর নিয়েছেন ৫ উইকেট।

ত্রিভুবন ইউনিভার্সিটি ক্রিকেট মাঠে টস জিতে ব্যাট করতে নামা বাংলাদেশকে ভালো শুরু এনে দেন দুই ওপেনার নাঈম শেখ ও সৌম্য সরকার। ৭.২ ওভারে এই জুটি তোলে ৫৯ রান। দুই ওপেনারের মধ্যে তুলনামূলক আগ্রাসী ব্যাটিং করা নাঈমকে রানআউট করে জুটি ভাঙেন মোহামেদ মাহফুজ। ২৮ বলে চারটি চার ও এক ছক্কায় নাঈম করেন ৩৮ রান।

অধিনায়ক নাজমুল হোসেনের সাথে দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে এরপর দলকে আরো কিছুটা টানেন সৌম্য। দুজনের জুটিতে ৩৬ বলে আসে ৫৩ রান। ৩৩ বলে চারটি চার ও দুটি ছক্কায় ৪৬ রান করে মাহফুজের বলে আউট হন সৌম্য।

ক্রিজে এসেই বোলারদের উপর চড়াও হয়েছিলেন আফিফ হোসেন। কিন্তু খুব বেশি সময় টেকেননি। ৯ বলে একটি করে চার ও ছক্কায় ১৬ রান করে স্টাম্পড হন আজিয়ান ফারহাতের বলে।

ইয়াসির আলি চৌধুরীর সাথে শান্তর ১৫ বলে ২৯ রানের চতুর্থ উইকেট জুটিতে এরপর দলের সংগ্রহ আরও বাড়ে। ইনিংসের শেষ ওভারে ইব্রাহিম হাসানের বলে আউট হওয়ার আগে এক চার ও তিন ছক্কায় ৩৮ বলে ৪৯ রান করেন শান্ত। ইয়াসির অপরাজিত থাকেন ১২ রানে।

রান তাড়ায় মালদ্বীপ কখনোই ঠিক জয়ের পথে ছিল না। রান তোলার গতি ছিল শ্লথ, পুরো ২০ ওভার ক্রিজে কাটিয়ে দেওয়াই যেন ছিল লক্ষ্য। সেই লক্ষ্যটাও পূরণ হয়নি তাদের।

প্রথম চার ওভার দেখেশুনেই কাটিয়ে দিয়েছিলেন দুই ওপেনার আহমেদ হাসান ও আলি ইভান। এরপরই শুরু তানভীরের দাপট। নিজের প্রথম ওভারেই বোল্ড করেন ১৬ বলে ১০ রান করা আহমেদকে।

প্রতি ওভারেই এরপর উইকেট পেয়েছেন এই বাঁহাতি স্পিনার। দ্বিতীয় ও তৃতীয় ওভারে ফিরিয়েছেন রিশওয়ান আজিয়ান ফারহাতকে। আর শেষ ওভারে মালদ্বীপকে দিয়েছেন জোড়া ধাক্কা, পেয়েছেন আলি ইভান ও মোহামেদ আজামের উইকেট। ৪ ওভার বল করে ৫ উইকেট পেতে তানভীরের খরচ মাত্র ১৯ রান।

মালদ্বীপের মিডল আর লোয়ার অর্ডারকে গুটিয়ে দেওয়ার কাজটা করেন অফস্পিনার আফিফ হোসেন ও লেগস্পিনার মিনহাজুল আবেদিন আফ্রিদি। আফিফ তুলে নেন উমার আদম ও ইব্রাহিম হাসানকে। মিনহাজুলের শিকার আমিল মাউরুফ ও মোহামেদ মাহফুজ। লিম শাফিগকে আউট করে এরপর দলের জয় নিশ্চিত করেন সৌম্য।

শেয়ার করুন:

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on pinterest
Share on whatsapp
Share on email
Share on print

আরও পড়ুন:

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
১৭৮,৪৪৩
সুস্থ
৮৬,৪০৬
মৃত্যু
২,২৭৫

বিশ্বে

আক্রান্ত
১৮,৬৯৯,৪৩২
সুস্থ
১১,৯১৪,৭৮৮
মৃত্যু
৭০৪,৩২৪

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১